এরাজ্যের বাসিন্দাদের বাড়িতে ফিরিয়ে আনতে এ্যন্ট্রি আ্যপ আনল রাজ্য সরকার

1180
এরাজ্যের বাসিন্দাদের বাড়িতে ফিরিয়ে আনতে এ্যন্ট্রি আ্যপ আনল রাজ্য সরকার 1

ডিজিটাল ডেস্ক: ভিন রাজ্যে পড়তে, চিকিৎসা করাতে, বেড়াতে বা তীর্থ করতে গিয়ে যারা আটকে পড়েছেন তাদেরকে রাজ্যে ফিরিয়ে আনার জন্য একটি নতুন আ্যপ চালু করল রাজ্য সরকার। বুধবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে এই বিষিয়ে রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়বলেন, ‘ভিন রাজ্যে পড়াশোনা, চিকিৎসা বা বেড়াতে গিয়ে যাঁরা লকডাউনে আটকে পড়েছেন, তাঁরা নিজেদের উদ্যোগেই গাড়ি ভাড়া করে বাড়ি ফেরার ব্যবস্থা করলে নিজেদের উদ্যোগেই ফিরতে পারেন। তার জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ‘Egiye Bangla’ ওয়েবসাইটে গিয়ে তাঁরা রাজ্যে ফেরার জন্য এন্ট্রি পাসের আবেদন করতে পারবেন আবেদন মঞ্জুর হলে তারা ফিরে আসতে পারেন।

স্বরাষ্ট্রসচিব জানান, নবান্নতে ফোন করে অনেক তীর্থযাত্রী ফোন করে আসার কথা জানিয়েছেন। তাঁরা নিজেরাই বাস অথবা  গাড়ির ব্যবস্থা করে ফিরতে আসতে চান বলে জানান।
তাঁদের জন্যও অ্যাপ চালু হচ্ছে। তবে প্রত্যেকের উদ্দেশ্যেই বলা হচ্ছে, বাইরে থেকে যাঁরা এ রাজ্যে ফিরতে চান, তাঁদের মেডিক্যাল চেক-আপের মধ্যে দিয়ে যেতে হবে।

এরাজ্যের বাসিন্দাদের বাড়িতে ফিরিয়ে আনতে এ্যন্ট্রি আ্যপ আনল রাজ্য সরকার 2

অন্য দিকে, যাঁরা পশ্চিমবঙ্গ থেকে ভিন রাজ্যে ফিরতে চান, তাঁদের জন্য ‘Egiye Bangla’ ওয়েবসাইটে ‘একজিট অ্যাপ’ রাজ্য সরকার আগেই চালু করেছিল। কিন্তু একসঙ্গে প্রচুর মানুষ আবেদন করার ফলে সেটি ক্র্যাশ করে। তবে নবান্ন তরফে আশ্বাস, সেই সমস্যা মেটানো হয়েছে। যাঁরা ভিন রাজ্যে ফিরতে চান, তাঁরা এখন ওই অ্যাপের্ মাধ্যমেই পাশ সংগ্রহ করতে পারবেন।

স্বরাষ্ট্রসচিব জানিয়েছেন, ভিন রাজ্য থেকে যাঁরা এ রাজ্যে ফিরবেন তাঁদের প্রথমে থার্মাল গানে পরীক্ষা করা হবে। কোনও রকম উপসর্গ পাওয়া গেলে তাঁদের সোয়াবের নমুনা পরীক্ষা করা হবে। আর বাড়ি ফিরে অন্তত ১৪ দিন হোম কোয়ারান্টিনে থাকতে হবে। যেসব রাজ্যে করোনার প্রাদুর্ভাব বেশি, সে রাজ্য থেকে কেউ ফিরতে চাইলে তাঁদের কঠোরতর মেডিক্যাল পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হতে পারে।

পরিযায়ী শ্রমিকদের ব্যাপারে স্বরাষ্ট্রসচিব বলেন রাজ্য ইতিমধ্যে শ্রমিকদের বিস্তারিত ডেটাবেস তৈরি করছে। তিনি বলেন, ‘পরিযায়ী শ্রমিকদের বলছি  দুশ্চিন্তার কারণ নেই। সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারের সঙ্গে কথা বলে ধাপে ধাপে ফেরানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। তাঁর কথায় পরিযায়ী শ্রমিক  তীর্থযাত্রী বা ছাত্র-ছাত্রীরা অন্য রাজ্যে গিয়ে আটকে রয়েছেন তাদের ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করতে চায় রাজ্য।