১৪ দিনের পূর্ণ লকডাউন ঘোষণা করল তামিলনাড়ুর সরকার।

46
Advertisement

নিউজ ডেস্ক:করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি যে রাজ্যগুলিতে তার মধ্যে অন্যতম তামিলনাড়ু। রাজধানী চেন্নাইতেই দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ৬ হাজার ছাড়িয়েছে।এর আগে সংক্রমণ রুখতে রাত্রিকালীন কারফিউ ও রবিবাসরীয় লকডাউন জারি করা হয়েছিল। কিন্তু তাতেও তেমন ফল না মেলায় এবার টানা ১৪ দিনের লকডাবউনের পথেই হাঁটল তামিলনাড়ুও।

Advertisement

তামিলনাড়ুতে ১০ মে অর্থাৎ সোমবার ভোর ৪ টে থেকে ২৪ মে সোমবার ভোর চারটে অবধি অর্থাৎ দু’‌সপ্তাহের সম্পূর্ণ লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে।শনিবার স্ট্যালিন সরকার জানিয়েছে, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সম্পূর্ণ লকডাউনের রাস্তায় হাঁটতে হল।

Advertisement
Advertisement

তবে তামিলনাড়ুতে লকডাউনে মুদিখানা, সবজি, মাছ, মাংসের দোকান বেলা ১২ টা অবধি খোলা থাকবে। বাকি সব দোকান থাকবে বন্ধ। মদের দোকানও সম্পূর্ণ বন্ধ। রেস্তোরাঁগুলি থেকে শুধু মাত্র হোম ডেলিভারি করা যাবে। জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্তরা কাজে যেতে পারবেন। বাকিদের বাড়ি থেকে কাজ করতে হবে। পেট্রল পাম্প খোলা থাকছে।

এছাড়া মানুষ যাতে লকডাউনের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র জোগাড় করে রাখতে পারেন সেজন্য শনিবার এবং রবিবার সকাল ৬ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত দোকান খুলে রাখার অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য,পশ্চিমবঙ্গের মত তামিলনাড়ুতেও হয়েছে বিধানসভা ভোট। যার জেরে জনসভা কিংবা পথসভাতে দূরত্ববিধি মানা হয়নি। মাস্কও ছিল না অনেকের মুখে। শুক্রবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন এমকে স্ট্যালিন। তারপরই শনিবার জারি করা হল সম্পূর্ণ লকডাউন।

তামিলনাড়ুতেও গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন ২৪,৪৬৫ জন। দৈনিক মৃতের সংখ্যা ১০০ পেরিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে দু’‌সপ্তাহের লকডাউন জারি করা হল সেখানে।