ভোট না দিলে বিপদ হবে, পরিবারের নারীর বিপদের হুমকি দেওয়া ভিডিও ভাইরাল হল তৃণমূল নেত্রীর! অভিযোগ অস্বীকার

245
ভোট না দিলে বিপদ হবে, পরিবারের নারীর বিপদের হুমকি দেওয়া ভিডিও ভাইরাল হল তৃণমূল নেত্রীর! অভিযোগ অস্বীকার 1

নিউজ ডেস্ক: “ভোটটা ভেবে দিবি, ঘরে সবার কিন্তু মা-বোন আছে,” ভোটের মুখেই ভাইরাল হল তৃণমূলের অভিনেত্রী প্রার্থী কৌশানীর এমন হুমকি ভরা বক্তব্যের ভিডিও। প্রচারে গিয়ে ভোটারদের এভাবে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠল কৃষ্ণনগর উত্তরের তৃণমূল প্রার্থী কৌশানী মুখোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে। ভিডিও ভাইরাল হওয়ায় শুরু হয়েছে জোর বিতর্ক। ভিডিও ট্যুইট করে ভোটারদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ তুলেছে গেরুয়া শিবির। হুমকির অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল প্রার্থী।

তৃণমূল প্রার্থী কৌশানীর দাবী, বিজেপি শাসিত রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার কথা বলেছিলাম। মাত্র একটা অংশ কেটে প্রচার করা হচ্ছে। তারকা প্রার্থী আরও বলেন, ‘বিজেপি শাসিত রাজ্যে মহিলাদের ওপর নিগ্রহের কথা বলতে গিয়েই তিনি ওই কথা বলেছিলেন। কিন্তু তার একটা অংশ কেটে প্রচার করছে বিজেপি। সেটা শুনে মনে হচ্ছে যেন তিনি হুমকি দিচ্ছেন। কৌশানী জানান, তাঁর টিমকে তাঁর বক্তব্যের পুরো অংশ সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করতে বলেছেন তিনি।

ভোট না দিলে বিপদ হবে, পরিবারের নারীর বিপদের হুমকি দেওয়া ভিডিও ভাইরাল হল তৃণমূল নেত্রীর! অভিযোগ অস্বীকার 2

নির্বাচনের মুখে এবার বেশ কিছু ভাইরাল ভিডিও ও অডিও ঘিরে সৃষ্টি হচ্ছে ভিডিও। কিছুদিন আগেই কসবার তৃণমূল প্রার্থী জাভেদ খানের অনুগামীদের বিরুদ্ধে ভোটের মুহূর্তে টাকা বিলির অভিযোগ ওঠে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে একটি ভিডিও, যেখানে একটি ব্যাগে নগদ টাকা ভরতে দেখা যায় একজনকে। সিপিএমের অভিযোগ, ভোটের মুখে টাকা বিলি করছেন কসবার তৃণমূল প্রার্থী জাভেদ খানের অনুগামীরা। ভিডিওকে কেন্দ্র করে রীতিমতো শোরগোল পড়ে যায়। বামেদের তরফে জানানো হয়, ভিডিও-সহ কমিশনে অভিযোগ জানাবেন তাঁরা। এবিষয়ে কসবার বাম প্রার্থী শতরূপ ঘোষ বলেন, “কমিশন আমাদের প্রার্থীদের আগেই জানিয়েছে নগদে কোনও লেনদেন করা যাবে না। তাহলে কীসের টাকা ব্যাগে ভরা হচ্ছিল?” কমিশনে যাবেন বলে জানিয়েছিলেন শতরূপও।

একই অভিযোগ উঠেছিল ঝাড়গ্রাম বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী সুখময় শতপথীর বিরুদ্ধেও। ঝাড়গ্রামের দলীয় কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে ঝাড়গ্রামের জুবলি মার্কেটে প্রচারে বেরোন ঝাড়গ্রামের বিজেপি প্রার্থী সুখময় শতপথী। সেখানে সকলের সঙ্গে জনসংযোগ করেন তিনি। সেইসময় প্রচার চলাকালীন ভেসে আসে কয়েকটি শব্দ-“ভোটের আগের দিন আসিস, খরচা দিয়ে দেব।” আর এমন ভিডিও ভাইরাল হতেই সরগরম হয়ে ওঠে রাজ্য-রাজনীতি। নির্বাচন কমিশনের কাছে এনিয়ে নালিশও ঠোকেন তৃণমূল প্রার্থী বীরবাহা হাসদাঁ। তবে নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে বিজেপি প্রার্থী সুখময় শতপথী জানান, তিনি নিজের মতন বাজারে প্রচার কর্মসূচি সারছিলেন। ভিড়ের মধ্যে কে কি বলে উঠল সেটার দায় তাঁর নয়।

তবে তৃণমূলের অভিনেত্রী প্রার্থীর এদিনের এই ভাইরাল ভিডিও যেন তৃণমূলের প্রয়াত নেতা তথা জনপ্রিয় অভিনেতা তাপস পালের স্মৃতি উসকে দিয়েছে; অন্তত একথাই মনে করছে অনেকেই। সেই যে সেদিন তাপস পাল বলেছিলেন, তিনি চন্দননগরের মাল, ঘরে ছেলে ঢুকিয়ে দেবেন, যা ঘিরে নিন্দার ঝড় উঠেছিল রাজ্য জুড়ে। তারপর থেকেই থিতো হতে থাকে তাপসের জনপ্রিয়তা। আর কৌশানীর এই ভাইরাল ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় হইচই ফেলে দিয়েছে।

দ্য খড়গপুর পোস্ট ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি।