অবশেষে পুলিশের জালে স্থলবন্দর কান্ডের মুল অভিযুক্ত বহিষ্কৃত তৃণমুল নেতা প্রসেনজিৎ রায়

113
অবশেষে পুলিশের জালে স্থলবন্দর কান্ডের মুল অভিযুক্ত বহিষ্কৃত তৃণমুল নেতা প্রসেনজিৎ রায় 1

নিউজ ডেস্ক:শেষরক্ষা আর হল না।দীর্ঘদিন গা ঢাকা দিয়ে থাকার পর অবশেষে পুলিশের জালে স্থলবন্দর কান্ডের মুল অভিযুক্ত বহিষ্কৃত তৃণমুল নেতা প্রসেনজিৎ রায়। সোমবার দুপুরে অসম সীমান্ত সংলগ্ন তিনশুকিয়াএলাকা থেকে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে মঙ্গলবার বিমানে শিলিগুড়ি নিয়ে আসা হয়। এরপর সোজা বাগডোগরা বিমানবন্দর থেকে জলপাইগুড়ি জেলা আদালতে পাঠানো হবে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে। যদিও বিষয়টি নিয়ে শিলিগুড়ির কোনও পুলিশকর্তা সংবাদমাধ্যমে কোনও মন্তব্য করতে চাননি।

অবশেষে পুলিশের জালে স্থলবন্দর কান্ডের মুল অভিযুক্ত বহিষ্কৃত তৃণমুল নেতা প্রসেনজিৎ রায় 2

গত ৪ঠা ফেব্রুয়ারি শিলিগুড়ির অদূরে এনজেপি’র কাছে টি পার্ক সংলগ্ন স্থলবন্দরে শ্রমিক নিয়োগকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার কান্ড ঘটেছিল। তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যেই এই সংঘর্ষ হয়। প্রায় শতাধিক শ্রমিক কাজের দাবীতে এনজেপি থেকে স্থলবন্দরে হাজির হয়।স্হলবন্দরে ঢুকতে বাধা পেলে।তারা গেট ভেঙে ঢুকে যায়। স্থলবন্দরে চালানো হয় ভাঙচুর।

অবশেষে পুলিশের জালে স্থলবন্দর কান্ডের মুল অভিযুক্ত বহিষ্কৃত তৃণমুল নেতা প্রসেনজিৎ রায় 3

অভিযোগ, তৃণমূলের এনজেপির আইএনটিটিইউসি প্রভাবশালী নেতা প্রসেনজিৎ রায় গোষ্ঠী ও সুকান্ত কর গোষ্ঠীর মধ্যেই এই ঝামেলা। কার দখলে যাবে এই স্থলবন্দর তা নিয়ে। ঘটনায় সেদিনই একাধিক আইএনটিটিইউসি নেতা ও কর্মীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এর পরেই নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশন চত্বর এলাকায় ধর্মঘট ডাকা হয়। সকাল থেকে বন্ধ থাকে হোটেল-সহ দোকানপাট। চলে না ছোট বড় কোনও গাড়িই। আর এতেই বিপাকে পড়েন যাত্রীরা।

ঘটনার মুল অভিযুক্ত প্রসেনজিৎ রায় ঘটনার পর থেকেই ফেরার হয়।তার তল্লাশি চালানো হয় ডুয়ার্সের বিভিন্ন প্রান্তে।এরপরেই পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব ও দার্জিলিং জেলা তৃণমুল সভাপতি রঞ্জন সরকার বৈঠক করে রাজ্য নেতৃত্বের নির্দেশে তৃণমুল থেকে বহিষ্কার করে প্রসেনজিৎ রায়কে।

Previous articleদুয়ারে সিবিআই যাওয়ার আগেই ভাইপোর দুয়ারে মুখ্যমন্ত্রী! আট পাতার প্রশ্ন তালিকা নিয়ে রুজিরাকে জেরা করতে হাজির কেন্দ্রীয় তদন্ত আধিকারিক
Next articleIIT Kharagpur হাসপাতালের নাম ঢাকল সাদা আচ্ছাদনে! নাম বদলের প্রতিবাদে আছড়ে পড়ল বিক্ষোভ, শ্যামাপ্রসাদের নামই নিলেননা প্রধানমন্ত্রী, ডিরেক্টরের মুখে বি.সি.রায়