নির্বাচনের মুখেই ৩ পদাধিকারী সহ দলের ৬ নেতাকে শোকজ করল শাসক শিবির

493
নির্বাচনের মুখেই ৩ পদাধিকারী সহ দলের ৬ নেতাকে শোকজ করল শাসক শিবির 1

নিজস্ব সংবাদদাতা: নির্বাচনের মুখে শাসক শিবিরে যেন একের পর ঝড় আছড়ে পড়ছে অনবরত। একদিকে দল ছাড়ার হিড়িক যেমন দেখা যাচ্ছে, ঠিক সেভাবেই দলের পক্ষ থেকেও ছেঁটে ফেলা হচ্ছে বেশ কাউকে। আর এমন ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রকাশ্যে আসছে শাসক শিবিরের অন্তরকলহ। এবারে দল বিরোধী কাজ করায় শোকজ করা হল তৃণমূলের ৬ নেতাকে। তিনদিনের মধ্যে সন্তোষজনক উত্তর না পাওয়া গেলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলেও জানা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ব্যাপারে পোস্ট করেন কোচবিহার তৃণমূল কংগ্রেসের কোচবিহার জেলা সভাপতি পার্থ প্রতিম রায়।

নির্বাচনের মুখেই ৩ পদাধিকারী সহ দলের ৬ নেতাকে শোকজ করল শাসক শিবির 2

তাঁর অভিযোগ, তৃণমূল কংগ্রেস দিনহাটা বিধানসভা কেন্দ্রে প্রার্থী করে উদয়ন গুহকে। প্রার্থী ঘোষণার পর থেকে দিনহাটা বিধানসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেসের একাংশ নেতা-কর্মীরা নিজেদের কাজ না করে তারা হাত গুটিয়ে বসে আছে। এই অভিযোগে তৃণমূল কংগ্রেসের ৩ জন পদাধিকারী সহ মোট ৬ জনকে শোকজ করল জেলা তৃণমূল। তিনদিনের মধ্যে সন্তোষজনক উত্তর না পাওয়া গেলে দলের নির্দেশেই কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই খবর পোস্ট করেন জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়।

নির্বাচনের মুখেই ৩ পদাধিকারী সহ দলের ৬ নেতাকে শোকজ করল শাসক শিবির 3

উল্লেখ্য, কয়েক মাস আগে দিনহাটা ২ নম্বর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস কমিটি গঠনের সময় তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব চরম সীমায় পৌঁছায়। একদিকে বিধায়ক উদয়ন গুহ, অপরদিকে দিনহাটা ২ নম্বর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস প্রাক্তন সভাপতি মীর হুমায়ুনের অনুগামীদের সঙ্গে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব চলতে থাকে। উভয় গোষ্ঠী আলাদা আলাদাভাবে কর্মসূচি গ্রহণ করে। দিনহাটা বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী হিসেবে উদয়ন গুহর নাম ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব যেন আরও উচ্চ পর্যায়ে পৌঁছে যায়।

এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে পার্থ বাবু লেখেন, রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেসের নির্দেশে দিনহাটা বিধানসভার তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্য ও পদাধিকারী মীর ইকবাল কবীর, মিলন সেন, বাবলা নন্দী, অজয় রায়, সাবির সাহা চৌধুরী, তরনীকান্ত বর্মন মহাশয়দের দলের নির্দেশ অনুযায়ী কাজ না করার জন্য আজ ১৭/০৩/২০২১ তারিখে শোকজ করা হল। তিনদিনের মধ্যে সন্তোষজনক উত্তর না পাওয়া গেলে দলের নির্দেশেই কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

অন্যদিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় শোকজের খবর পাওয়ার পর যুব তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা সাধারণ সম্পাদক অজয় রায় বলেন, কি কারণে তাদের শোকজ করা হল তাদের জানা নেই। তারাও সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখতে পেয়েছেন সেই খবর। তিনি আরও জানান, তাদের হাতে এখনও শোকজের চিঠি আসেনি। চিঠি হাতে পেলেই তারা শোকজের উত্তর দেবেন।

Previous articleখড়গপুরে শনিবার মোদি, প্রস্তুতি শুরু করে দিল প্রশাসন! ভিড় টানতে সভা বাড়ছে প্রধানমন্ত্রীর, দেখে নিন কবে কোথায় সভা করছেন মোদি
Next articleযারা ভারতকে সোনার চিড়িয়া বানানোর নামে বেহাল করেছে তারাই বলছে সোনার বাংলা বানাবে! বুঝুন বাংলার কী হাল হবে: দাঁতনে দেব