পিকনিক করার নামে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন তৃনমূল কর্মীকে, বীরভূমে গোষ্টি দ্বন্দ্বের ইঙ্গিত

131
পিকনিক করার নামে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন তৃনমূল কর্মীকে, বীরভূমে গোষ্টি দ্বন্দ্বের ইঙ্গিত 1

বিশেষ সংবাদদাতা: পিকনিকে ডেকে নিয়ে গিয়ে গুলি করে খুন করা হল এক তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীকে। শনিবার সকালে রানিপাথর গ্রামের একটি পুকুর থেকে গুলি বিদ্ধ দেহ উদ্ধার করা হয়ে ওই কর্মীর। এলাকাটি বীরভূম জেলার খয়রাশোল থানার অন্তর্ভুক্ত। মৃতের নাম শিশির বাউরি (৪৫)। তার বাড়ি পাশের আমজোলা গ্রামে । শিশির বাউরির মাথায় ও দেহে গভীর ক্ষতচিহ্ন আছে। তা দেখে পুলিশ ধারণা করছে যে গুলি করে খুন করা হয়েছে । মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়ে তদন্ত শুরু করেছে খয়রাশোল থানার পুলিশ ।

মৃতের স্ত্রী বুলু বাউরির অভিযোগ, শুক্রবার রাতে তার স্বামীকে ডেকে নিয়ে যায় এলাকার কয়েকজন । পিকনিক করার নামে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন করা হয়েছে তার স্বামীকে।

পিকনিক করার নামে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন তৃনমূল কর্মীকে, বীরভূমে গোষ্টি দ্বন্দ্বের ইঙ্গিত 2

আর এই খুনের ঘটনা য় উঠে এসেছে এলাকার বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেসের মধ্যে দ্বন্দ্বর অভিযোগ ।

জানা গিয়েছে যে আগে বিজেপি দলে ছিলেন শিশির । বছর খানেক আগে বিজেপি দল ছেড়ে দিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন ।

শুক্রবার রাতে যারা শিশির বাউরিকে ডেকে নিয়ে যায় তাদের মধ্যে আছেন এলাকার তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা কিশোর মন্ডল ।

সারারাত বাড়ি ফিরে না আসায় শিশির বাউরির খোঁজ শুরু করে বাড়ির ও এলাকার লোকজন। তখনই তারা জানতে পারে রানিপাথর গ্রামের একটি পুকুর পাড়ে পড়ে আছে শিশির বাউরির রক্তাক্ত দেহ।

স্বভাবতই যারা তাকে ডেকে নিয়ে যায় তাদের দিকেই সন্দেহর তির উঠেছে । যদিও কিশোর মন্ডল দাবি করেন যে রাতে যে যার মতো বাড়ি ফিরে যায় । এদিন সকালে তিনি জানতে পারেন যে পাশের গ্রামের একটি পুকুর পাড়ে পড়ে আছে শিশির বাউরি র মৃতদেহ । তার দাবি, বিজেপির লোকজন পরিকল্পনা মাফিক এই খুন করেছে ।

যদিও এই সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এলাকার বিজেপি নেতৃত্ব । তাদের দাবি, বিজেপি খুনের রাজনীতি করে না। এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের যে গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব আছে তা সকলের জানা । এই খুন ওই গোষ্ঠী দ্বন্দ্বর কারণে হয়েছে । পুলিশ সঠিক ভাবে তদন্ত করলেই প্রকৃত সত্য উঠে আসবে।