বিজেপি ভোট কিনছে! ঝাড়গ্রামের বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে কমিশনে নালিশ তৃনমূল প্রার্থী বীরবাহার

288
বিজেপি ভোট কিনছে! ঝাড়গ্রামের বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে কমিশনে নালিশ তৃনমূল প্রার্থী বীরবাহার 1

অশ্লেষা চৌধুরী: বিজেপির নির্বাচনী প্রচারে ভোটের আগের দিন খরচা মিটিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি; নির্বাচন কমিশনে নালিশ ঠুকলেন তৃণমূল প্রার্থী বীরবাহা। ঘটনার সূত্রপাত দিন সাতেক আগে। সেদিন ঝাড়গ্রামের দলীয় কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে ঝাড়গ্রামের জুবলি মার্কেটে প্রচারে বেরোন ঝাড়গ্রামের বিজেপি প্রার্থী সুখময় শতপথী। সেখানে সকলের সঙ্গে জনসংযোগ করেন তিনি। সেইসময় প্রচার চলাকালীন ভেসে আসে কয়েকটি শব্দ-“ভোটের আগের দিন আসিস, খরচা দিয়ে দেব।” আর এমন ভিডিও ভাইরাল হতেই রীতিমত তোপ দাগে শাসক শিবির।

বিষয়টি ইতিমধ্যেই নির্বাচন কমিশনের কাছে জানিয়েছেন ঝাড়গ্রামের তৃণমূল প্রার্থী বীরবাহা হাসদাঁ। এমনকি তিনি নিজে গিয়েও নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন। তৃণমূল প্রার্থী বীরবাহা হাসদাঁ বলেন, বিজেপি বুঝে গিয়েছে যে ওরা জিততে পারবে না। তাই তারা সন্ত্রাস করে, লোভ দেখিয়ে চেষ্টা করছে ভোটে জেতার। কিন্তু এসবে কোনও লাভ হবে না, ভোটের পর সাধারণ মানুষ বুজেপিকে ছুঁড়ে ফেলে দেবে বলেই দাবী করেন তৃণমূল প্রার্থী বীরবাহা।

বিজেপি ভোট কিনছে! ঝাড়গ্রামের বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে কমিশনে নালিশ তৃনমূল প্রার্থী বীরবাহার 2

তবে নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে বিজেপি প্রার্থী সুখময় শতপথী জানান, তিনি নিজের মতন বাজারে প্রচার কর্মসূচি সারছিলেন। ভিড়ের মধ্যে কে কি বলে উঠল সেটার দায় তাঁর নয়। বিজেপি প্রার্থীর দাবী, তৃণমূল এইসব কাজ করে, তাই ওদের চোরের মন-পুলিশ পুলিশ। যার যা অভ্যাস সে তো সেটাই দেখবে। পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তোপ দেগে বলেন, টাকা ছড়ানো ওনার অভ্যাস, বিজেপি দীর্ঘদিনের পুরনো দল, তারা ১০ বা ১৫ বছরের দল নয়। সংগঠন করে বিজেপি জয় লাভ করে এসেছে এতদিন, টাকা ছড়িয়ে নয়। তাই নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করেও কোনও লাভ হবে না বলেও দাবী করেন বিজেপি প্রার্থী।

আগামী ২৭ শে মার্চ রাজ্যে প্রথম দফার নির্বাচন। ঝাড়গ্রামেও এই তারিখেই হবে ভোট গ্রহণ। আর তার মাত্র ৩ দিন আগে বিজেপি প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারের এমন ভাইরাল ভিডিও এবং সেই ভিডিও ঘিরে নির্বাচন কমিশনের কাছে শাসক শিবিরের নালিশ গেরুয়া শিবিরকে যে চরম অস্বস্তিতে ফেলেছে, সেই কথা প্রকাশ্যে মেনে না নিলেও যে অস্বীকার করার উপায় নেই, সেকথাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

উল্লেখ্য, লোকসভা ভোটের সময় থেকেই গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে নির্বাচনে টাকা ছড়ানোর অভিযোগ করে একের পর এক তোপ দেগেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এবার বিধানসভা নির্বাচনের আগে ভাইরাল হওয়া ঝাড়গ্রামের ভিডিও সামনে আসতেই পুরুলিয়ার পারার সভা থেকে এই নিয়ে সরব হন তৃণমূল নেত্রী। তিনি বলেন, ঝাড়গ্রামের প্রার্থী টাকার টোপ দিচ্ছেন। তবে তৃণমূল সুপ্রিমো এও পরামর্শ দিয়েছে, সেই টাকা নিয়ে নেবেন কিন্তু বিজেপিকে ভোট দেবেন না।