করোনার প্রভাব বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ান শিপে আসছে বড়সড় পরিবর্তন!

114
করোনার প্রভাব বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ান শিপে আসছে বড়সড় পরিবর্তন! 1

নিউজ ডেস্ক: বিশ্ব জুড়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে করোনা। এই অতিমারীর কারণে জীবনযাত্রা থেকে শুরু করে বদলে গিয়েছে সবকিছুই। প্রভাব পড়েছে ক্রীড়াঙ্গন তথা ক্রিকেট জগতেও। চলতি বছরের মার্চ মাসের পর থেকে এখনও পর্যন্ত অসংখ্য সিরিজ, টুর্নামেন্ট হয় স্থগিত, না হয় বাতিল করতে বাধ্য হয়েছেন আয়োজকরা। এর মধ্যে রয়েছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম আসরও। এই মহামারীর কারণেই সময় হারিয়ে নিয়ম বদলাতে বাধ্য হচ্ছে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

প্রাথমিকভাবে বলা হয়েছিল, টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে সব দলের ছয় সিরিজ শেষে পয়েন্টের ভিত্তিতে নির্ধারণ করা হবে দুই ফাইনালিস্ট দল। কিন্তু করোনার দৌলতে সময়ের মধ্যে সব দলের ছয় সিরিজ আয়োজন করা প্রায় অসম্ভব ।তাই এখন পয়েন্টের বদলে পয়েন্টের হার শতাংশ হিসেব করে বাছাই করা হবে ফাইনালিস্ট দুই দল। অর্থাৎ নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে অংশগ্রহণকারী দলগুলো যে কয়টি সিরিজ খেলতে পারবে, সেসব সিরিজে পাওয়া পয়েন্টের শতাংশের হিসেবে ঠিক করা হবে দুই ফাইনালিস্ট দল।

করোনার প্রভাব বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ান শিপে আসছে বড়সড় পরিবর্তন! 2

তবে এ নিয়মটি এখনও প্রস্তাবনা পর্যায়ে রয়েছে। আইসিসির ক্রিকেট কমিটি সম্ভাব্য সেরা সমাধান হিসেবে এই পদ্ধতিটি বেছে নিয়েছে। চলতি সপ্তাহেই আইসিসির চিফ এক্সিকিউটি কমিটির সভায় এই নিয়মের ব্যাপারে আলোচনা-পর্যালোচনার পর নেওয়া হবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত যা শুরু হবে সোমবার।

আরও পড়ুন -  প্রতিপদেই করোনাসুরের প্রবেশ ঘটল গাঁয়ের দুর্গার ঘরে! মেদিনীপুর শহর ও শহরতলিতে কোভিড সংক্রমনের আগমনী

এছাড়া করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় আরও একটি প্রস্তাব রাখা হয়েছিল। যেসব সিরিজ স্থগিত করা হয়েছে, সেগুলোর পয়েন্ট দুই দলকে সমান ভাগ করে দেওয়ার আলোচনাও করেছিল ক্রিকেট কমিটি। কিন্তু এটি মান্যতা দেওয়া হয়নি। তাই এখন সম্ভাব্য সেরা সিদ্ধান্ত হিসেবেই মূলত পয়েন্টের শতকরা হিসেবের দিকে জোর দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন -  কলকাতায় চিকিৎসা করাতে গিয়ে করোনা নিয়ে ফিরলেন পশ্চিম মেদিনীপুরের গৃহবধূ, রেকর্ড ভেঙে একদিনেই রাজ্যে আক্রান্ত ২০৮

এই নিয়ম লাঘু হলে এখন যারা পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রয়েছে, তাদের কোন সমস্যা হবে না। আবার যারা করোনার কারণে অনেক ম্যাচ খেলতে পারেননি তারাও সামনের সিরিজগুলো খেলে পয়েন্টের হার বৃদ্ধি করে নিতে পারবেন। মূলত এ কারণেই নতুন এই প্রস্তাবনাটি পাস হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। আগামী বছর জুনে হতে যাওয়া টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের দৌড়ে এখনও পর্যন্ত পয়েন্টের হিসেবে এগিয়ে রয়েছে ভারত ও অস্ট্রেলিয়া। ভারতের রয়েছে ৩৬০ ও অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ২৯৬ পয়েন্ট। এছাড়া ইংল্যান্ডের রয়েছে ২৯২ পয়েন্ট। তবে নতুন নিয়ম বাস্তবায়িত হলে সম্ভাবনা বেড়ে যাবে নিউজিল্যান্ডের।

আরও পড়ুন -  অনেক 'কীর্তি' রেখে প্রয়াত 'দাদার কীর্তি'র নায়ক , বাংলা চলচ্চিত্র প্রেমীরা হারালেন তাপস পালকে

পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে আসন্ন দুই সিরিজ থেকে তারা যদি পূর্ণ ২৪০ পয়েন্ট সংগ্রহ করতে পারে, তাহলে তাদের মোট পয়েন্ট হবে ৪২০ এবং পয়েন্টের হার দাঁড়াবে ৭০ শতাংশ, যা তাদের ইংল্যান্ডের চেয়ে এগিয়ে দেবে, তবে ভারতের চেয়ে খানিক পিছিয়েই রাখবে তারা।

সেই সময় আবার বিবেচনায় আসবে ভারত-অস্ট্রেলিয়ার আসন্ন বর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি। সেখানে যত বেশি পয়েন্ট খোয়াবে ভারত, ততই লাভ হবে নিউজিল্যান্ডের। বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ার পয়েন্টের হার ৮২.২২ শতাংশ এবং ভারতের ৭৫ শতাংশ। ফলে আসন্ন সিরিজটি দুই দলের জন্য অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।
এখন এই নতুন প্রস্তাবনায় শীলমোহর পড়ে কিনা, সেটাই দেখার।