রোদ চড়তেই ঝপ করে নামল পারদ, ফিরে আসা উত্তুরে হাওয়ার দাপটে কাঁপন খড়গপুর মেদিনীপুরে

349
রোদ চড়তেই ঝপ করে নামল পারদ, ফিরে আসা উত্তুরে হাওয়ার দাপটে কাঁপন খড়গপুর মেদিনীপুরে 1
রোদ চড়তেই ঝপ করে নামল পারদ, ফিরে আসা উত্তুরে হাওয়ার দাপটে কাঁপন খড়গপুর মেদিনীপুরে 2
ক্লক টাওয়ার, আইআইটি খড়গপুর 

নিজস্ব সংবাদদাতা : সরস্বতী  পুজোর দুদিনই পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে বৃষ্টি হলেও শুক্রবার ফের রোদ ঝলমল হতে শুরু করেছে আকাশ । এদিন সকালের দিকে আংশিক মেঘলা থাকলেও বেলা বাড়তেই কাটছে মেঘ উঠছে রোদ। আর তার সাথেই অন্তিম ইনিংসে দাপিয়ে ব্যাটিং শুরু করে দিয়েছে শীত। এদিন হঠাৎই সকাল সাড়ে আটটার পর রীতিমত কাঁপন অনুভব হয়েছে খড়গপুর ও মেদিনীপুর। কেন এমন হল খোঁজ নিতেই জানা গেল হঠাৎই উত্তুরে হাওয়ার দাপট শুরু হয়েছে। আইআইটি খড়গপুরের ক্যাম্পাস ওয়েদার রিপোর্ট বলছে উত্তরদিক থেকে ১৩কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টায় হাওয়া বইছে।

রোদ চড়তেই ঝপ করে নামল পারদ, ফিরে আসা উত্তুরে হাওয়ার দাপটে কাঁপন খড়গপুর মেদিনীপুরে 3

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
অন্যদিকে বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আবহাওয়া উদ্যান সূত্রে জানা গেছে  বৃহস্পতিবারের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২০.৩৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা শুক্রবার প্রায় ৫ডিগ্রি নেমে গিয়ে ১৫ ডিগ্রির কাছাকাছি। আর তার ফলে প্রায় মিলিয়ে যাওয়া শীতের আমেজ ফের চাগাড় দিচ্ছে সপ্তাহান্তে। হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস, বৃহস্পতিবারের তুলনায় শুক্রবার মহানগরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা তিন ডিগ্রি কমতে পারে। এমনকী, আগামী দু’তিন দিন শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩ থেকে ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কোঠায় ঘোরাফেরা করতে পারে, যা স্বাভাবিকের তুলনায় কম। আর খড়গপুর মেদিনীপুর শহরে তাপমান নেমে যেতে পারে ১১/১২ ডিগ্রিতে।  অতঃপর জানুয়ারির শেষ সপ্তাহে বিদায় বেলায় ফের শীতের আমেজ উপভোগ করতে পারবেন কলকাতা সহ দক্ষিনবঙ্গ।

রোদ চড়তেই ঝপ করে নামল পারদ, ফিরে আসা উত্তুরে হাওয়ার দাপটে কাঁপন খড়গপুর মেদিনীপুরে 4
মর্নিং ওয়াক , আআইটি ক্যাম্পাস 

মেঘ কাটলেই ফের উত্তুরে হাওয়া বইবে। কমবে তাপমাত্রা। হাওয়া অফিসের এক আধিকারিকের কথায়, শুক্রবার থেকে রোদ ঝলমলে আকাশ হলেই চলে যাওয়া ঠান্ডা আবারও মালুম হবে। আর শীতের এই খামখেয়ালি আচরণের কারণেই নানা অসুখ বাসা বাঁধছে গৃহস্থের অন্দরে।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই আকাশের মুখ ছিল ভার। বেলার দিকে ঘোর আঁধার নামে। মিনিট দশেকের মুষলধারায় বৃষ্টি নগরজীবনকে রীতিমতো বেসামাল করে দেয়। শহর ও শহরতলি-সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলাতেও বৃষ্টি হয়েছে। এদিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৮.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যে কারণে বৃষ্টি হলেও বেশ গরম অনুভব ভালই। তবে আজ থেকে রোদ ঝলমলে দিনের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে নামবে পারদ।

রোদ চড়তেই ঝপ করে নামল পারদ, ফিরে আসা উত্তুরে হাওয়ার দাপটে কাঁপন খড়গপুর মেদিনীপুরে 5
এখানে বিজ্ঞাপন দিন 

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, বীরভূমের শ্রীনিকেতনে এ দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। অন্য দিকে, বাঁকুড়ায় তা ১৩.৭ ডিগ্রি, মেদিনীপুরে ১৫.৭ ডিগ্রি এবং বর্ধমানে ১৪.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সমতলের মতোই শীতের আমেজ রয়েছে পাহাড় জুড়ে। দার্জিলিংয়ে এ দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কালিম্পঙে তা রয়েছে ২ ডিগ্রির ঘরে।