সেপ্টেম্বরেই কি খুলবে স্কুল-কলেজ? মুখ্যমন্ত্রীর ইঙ্গিতে জল্পনা তুঙ্গে

107

ওয়েব ডেস্ক : করোনা সংক্রমণের জেরে গত মার্চ থেকে টানা ৪ মাস বন্ধ স্কুল-কলেজ৷ এই পরিস্থিতিতে বেসরকারি স্কুলগুলিতে চলছে অনলাইন ক্লাস। কিন্তু কবে খুলবে স্কুল-কলেজ? তা নিয়েই চিন্তিত ছাত্রছাত্রীরা৷ এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার নবান্ন থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি খোলার বিষয়ে ইঙ্গিত দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন, সব ঠিক থাকলে সেপ্টেম্বরে খোলা হতে পারে স্কুল, কলেজ। তবে সেক্ষেত্রে অবশ্যই একাধিক নিয়মকানুন বেঁধে দেওয়া হবে। কিন্তু যে হারে রাজ্যে গোষ্ঠী সংক্রমণ বাড়ছে, তাতে যদি এই মূহুর্তে স্কুল-কলেজগুলি খুলে দেওয়া হয় তবে সেক্ষেত্রে সংক্রমণের শিকার হতে পারে পড়ুয়ারা৷ ফলে এদিন মুখ্যমন্ত্রীর ইঙ্গিতে স্বাভাবিকভাবেই জল্পনার সৃষ্টি হয়েছে।

মঙ্গলবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকের মাধ্যমে মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করেন আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকবে। এর পাশাপাশি এদিন তিনি আরও বলেন, “শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে সরকার একটা প্রাথমিক পরিকল্পনা করেছে। করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হলে ৫ সেপ্টেম্বর সর্বপল্লি রাধাকৃষ্ণনের জন্মদিন থেকে ফের শুরু হতে পারে পঠনপাঠন। তবে সেক্ষেত্রেও বেশ কিছু বিধি নিষেধ থাকবে।”

অন্যদিকে, সোমবার বিকেলে নাইসেডের অত্যাধুনিক পরীক্ষাগারের ভার্চুয়াল উদ্বোধন অনুষ্ঠান উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনই প্রধানমন্ত্রীর কাছে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের চূড়ান্ত পরীক্ষার বিষয়টি বিবেচনা করে দেখার অনুরোধ জানান মুখ্যমন্ত্রী। এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও জানান, পরিস্থিতির উন্নতি হলে যদি স্কুল-কলেজ খোলা হয় তবে সেক্ষেত্রে প্রতিদিন ক্লাস হবে না। একদিন পর পর ক্লাস হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। একই সাথে তিনি জানান, যতদিন না মারণ ভাইরাসের দাপট থেকে রেহাই না পাওয়া যাচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত এভাবেই চালানো হতে পারে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলির পঠনপাঠন। একই সঙ্গে শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্রছাত্রীদের জন্য আরও বেশ কিছু নিয়ম বাধ্যতামূলক করা হবে৷ তবে সেপ্টেম্বরেই যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি খুলবে তার কোনও নিশ্চয়তা নেই। করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করেই সব সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে, মঙ্গলবার নবান্নের সভাঘর থেকে এমনটাই জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন -  বিয়ে বাড়ির বাস উল্টে মৃত প্রায় সমস্ত বরযাত্রী, মৃত ১০মহিলা ও ৩ শিশু সমেত ২৪

সোমবার বিকেলে নাইসেডের অত্যাধুনিক পরীক্ষাগারের ভার্চুয়াল উদ্বোধন অনুষ্ঠান উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিনই প্রধানমন্ত্রীর কাছে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের চূড়ান্ত পরীক্ষার বিষয়টি বিবেচনা করে দেখার অনুরোধ জানান মুখ্যমন্ত্রী। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে জানান, পশ্চিমবঙ্গে বর্তমান পরিস্থিতিতে কেন্দ্র সরকারের এই সিদ্ধান্তে বিপাকে পড়বেন এরাজ্যের কয়েক হাজার পরীক্ষার্থী। কারণ, একেই এই মূহুর্তে পশ্চিমবঙ্গে গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়ে গিয়েছে। কিভাবে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে তা বুঝে ওঠার আগেই প্রতিদিন কয়েক হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন। এর জেরে অনির্দিষ্টকালের জন্য রাজ্যের সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন -  গুগুল ট্রেন্ডিংয়ে উঠে এল 'দ্য খড়গপুর পোষ্ট, ' সর্বোচ্চ দ্বিতীয় স্থানে ঠাঁই পেল খড়গপুর

ফলে এইবছর আদৌ খোলা সম্ভব হবে কিনা তাও জানা নেই৷ ফলে পরীক্ষা কবে নেওয়া যাবে তাও অনিশ্চিত। তারওপর অনলাইন পরীক্ষার ক্ষেত্রেও বহু অসুবিধা রয়েছে। এমন অনেক ছাত্রছাত্রী রয়েছে যাদের অনলাইন প্রযুক্তি ব্যবহারের সামর্থ নেই। এর ফলে যদি স্কুল-কলেজগুকি খোলা পর্যন্ত অপেক্ষা করা হয়, সেক্ষেত্রে ঝুলে থাকবে ছাত্রছাত্রীদের ভাগ্য। এই নিয়ে এদিন কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ বিকাশ মন্ত্রককের তরফে ইউজিসি-কে নির্দেশ দিতে অনুরোধ করেন মুখ্যমন্ত্রী।

সেপ্টেম্বরেই কি খুলবে স্কুল-কলেজ? মুখ্যমন্ত্রীর ইঙ্গিতে জল্পনা তুঙ্গে 1