দুষ্কৃতিদের চোখ রাঙানি উপেক্ষা করেই ভোট কেন্দ্রে মহিলা, ভাইরাল ভিডিও দেখে স্যালুট জানালো বাংলা

386
দুষ্কৃতিদের চোখ রাঙানি উপেক্ষা করেই ভোট কেন্দ্রে মহিলা, ভাইরাল ভিডিও দেখে স্যালুট জানালো বাংলা 1

অশ্লেষা চৌধুরী:  “ভোট দিতে যাবই, যা তোর কী করার করে নে” মুখের ওপর সোজা-সাপ্টা ভাষায় প্রতিবাদ জানিয়ে ভোট গ্রহণ কেন্দ্রের দিকে সদর্পে এগিয়ে গেলেন মহিলা ভোটার। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুরের ১২৩ নং বুথের।

মঙ্গলবার রাজ্যে তৃতীয় দফা নির্বাচনের শুরুটাও হয় নানান অশান্তি ও উত্তপ্ত পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে। এদিন দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুরের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়, যেখানে দেখা যায়, এক মহিলা ভোটারকে ভোট দান কেন্দ্রে দিতে স্থানীয় এক ব্যক্তি, যিনি এলাকায় তৃণমূল কর্মী বলেই পরিচিত বলে জানা যায়। মহিলার ওপর গলা চড়িয়ে রীতিমতন হুমকি দিতে শোনা যায় ওই তৃণমূল কর্মীকে। এমনকি, ধাক্কাধাক্কিও করতে দেখা যায়। ভোট দিলে ফল ভুগতে হবে বলেও হুমকি দেওয়া হচ্ছে। আরও বলা হয়, ভোট দিতে যাচ্ছিস যা, এরপর কীভাবে সামলাস।

দুষ্কৃতিদের চোখ রাঙানি উপেক্ষা করেই ভোট কেন্দ্রে মহিলা, ভাইরাল ভিডিও দেখে স্যালুট জানালো বাংলা 2

তবে মহিলাও কম যান না। একেবারে রুখে দাঁড়ান এই ঘটনার প্রতিবাদে। জোর গলায় বলেন, আমি তো ভোট দিতে যাবই, তোর কি করার আছে করে নিস।“ মহিলা আরও বলেন, তোরাই তো আমার ঘরের অ্যাসবেস্টার ভেঙে দিয়েছিস আগের দিন রাতে। তোরাই এসব করিস।“ অভিযুক্ত ব্যক্তি এই কথা অস্বীকার করলে মহিলা বলেন, “তোরা যদি এই কাজ নাই করে থাকিস তবে যারা করেছে,  তাদের বিরুদ্ধে কেন রুখে দাঁড়ালি না?”

এরপরই মহিলা জোর গলায় বলেন, ভোট দেওয়া তাঁর অধিকার এবং তিনি নিশ্চয়ই ভোট দেবেন, ওই ব্যক্তির যা করার করে নিক, তিনিও দেখে নেবেন। এই ঘটনায় নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দায়ের করে সিপিআইএম। আর এমন ভাইরাল ভিডিও দেখে নড়েচড়ে বসে কমিশনও। ঘটনার পুনরাবৃত্তি যেন না ঘটে, তাই সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে পাঠান হয় পুলিশ ও সেক্টর অফিসারকে।  ভাইরাল ভিডিও-র ভিত্তিতে ঘটনার রিপোর্ট পেশের নির্দেশ দেয় কমিশন।  অভিযুক্ত তৃণমূল নেতাকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাঁর নাম গৌরাঙ্গ মাখাল। তাঁকে এরই মধ্যে আটক করা হয়েছে বলেও জানা যায়।

তবে মুখের ওপর এইভাবে প্রতিবাদ জানিয়ে মহিলা যে দারুণ সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন, সেই কথাই সকলের মুখে মুখে।