পাওয়াই যায়নি চুরির দ্রব্য, ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে গনপিটুনি মহিলাকে, দাঁড়িয়ে দেখল জনতা

317
পাওয়াই যায়নি চুরির দ্রব্য, ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে গনপিটুনি মহিলাকে, দাঁড়িয়ে দেখল জনতা 1
পাওয়াই যায়নি চুরির দ্রব্য, ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে গনপিটুনি মহিলাকে, দাঁড়িয়ে দেখল জনতা 2

নিজস্ব সংবাদদাতা: চোর সন্দেহে ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে পেটানো হল মহিলাকে অথচ তাঁর কাছ থেকে কোনও চুরি দ্রব্যই পাওয়া যায়নি!  বৃহস্পতিবার  উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাটের ভ্যাবলা পাইকারি মার্কেটে চোর সন্দেহ ওই মহিলাকে ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে বেধড়ক মারধর করা হয়। বেশ কিছুক্ষণ পর বসিরহাট থানা পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করে। জখম হওয়ায় আপাতত চিকিৎসা চলছে তাঁর। যদিও প্রাথমিক ভাবে চুরি যাওয়া কোনও জিনিসই মেলেনি তার কাছ থেকে।

পাওয়াই যায়নি চুরির দ্রব্য, ল্যাম্পপোস্টে বেঁধে গনপিটুনি মহিলাকে, দাঁড়িয়ে দেখল জনতা 3

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
ভ্যাবলা পাইকারি মার্কেটের  আয়ুব আলি সর্দার নামে স্থানীয় বাসিন্দার অভিযোগ, মাঝবয়সি ওই মহিলা তার দোকান থেকে ১০০০ টাকা দরের অন্তত পাঁচটি তাঁতের শাড়ি চুরি করেছে। চোর সন্দেহে ওই মহিলার উপর প্রথমে চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করেন ওই ব্যবসায়ী। তাঁর চিৎকারে অন্যান্য লোকজন জড়ো হয়ে যায়। চুরি করেননি বলে বারবার জানালেও, মহিলার কথায় কান দেয়নি কেউই। পরিবর্তে তাঁর হাত একটি ল্যাম্পপোস্টের সঙ্গে বেঁধে ফেলা হয়। প্রথমে চুলের মুঠি ধরে বেধড়ক মারধর করা হয় তাঁকে। কিল, চড়, ঘুসিও মারা হয় ওই মহিলাকে। বেশ কিছুক্ষণ ধরে চলে গণপিটুনি। এদিকে, এই খবর লোকমুখে বসিরহাট থানার পুলিশের কাছে পৌঁছয়। প্রায় সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বিশাল পুলিশবাহিনী। মহিলাকে উদ্ধার করেন পুলিশকর্মীরা।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
গণপিটুনিতে বেশ চোট পেয়েছেন ওই মহিলা। প্রাথমিক চিকিৎসাও করা হয়েছে তাঁর। পুলিশ সূত্রে খবর, একটু সুস্থ হওয়ার পরই ওই মহিলাকে জেরা করা হবে। তাতেই নিশ্চিতভাবে জানা যাবে আদৌ ওই ব্যবসায়ীর অভিযোগ সত্যি কি না। গণপিটুনিতে যারা জড়িত, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেই জানিয়েছে বসিরহাট থানার পুলিশ।