94

ওয়েব ডেস্ক : আর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক চালিয়ে যেতে নারাজ প্রেমিকা গৃহবধূ কিন্তু সম্পর্ক ছেড়ে বেরুতে নারাজ প্রেমিক প্রবর। টানা পোড়েন এর জেরে প্রেমিকার হাতে নৃশংসভাবে খুন হতে হল প্রেমিককে৷ ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার ফজিরবাজারের জেলে পাড়া এলাকায়। মৃত ব্যক্তি আশিস কুমার সিং দক্ষিণ ২৪ পরগনার জিঞ্জিরা বাজারের বাসিন্দা। তিনি পেশায় পরিবহণ ব্যবসায়ী। তার স্ত্রী এবং পুত্রসন্তানও রয়েছেন।

প্রেমিকা কবিতা দুবে একজন ভজন শিল্পী, কয়েকমাস আগে দক্ষিন ২৪ পরগণায় আশিসের বাড়িতে ভজন গাইতে গিয়েছিলেন কবিতা। সেখানেই কবিতাকে দেখে পছন্দ হয় আশিসের। এরপর সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে তাদের যোগাযোগ চলে। একসময় তারা প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এদিকে কবিতাও বিবাহিতা তার স্বামী ও পুত্র সন্তান নিয়ে সংসার। স্বামী কাজে বেরিয়ে গেলে সেই সুযোগে বেধ কয়েকবার কবিতার বাড়িতেও এসে আশিস। তবে ইদানীং নাকি সেই সম্পর্কে চিড় ধরে৷ কোনো এক অজানা কারণে সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসতে চাইছিল কবিতা। কিন্তু আশিস কোনোভাবেই সম্পর্ক ভাঙতে রাজি নয়। এই নিয়ে কয়েকদিন যাবত আশিসের সাথে কবিতার অশান্তি চলছিল।

এরপর শুক্রবার সকালে কবিতার স্বামী কাজে বেরিয়ে গেলে সে আশিসকে বাড়িতে ডেকে পাঠান। বেশ কিছুক্ষণ তাদের মধ্যে অশান্তি চলে। অভিযোগ, সেই সময় আচমকা কবিতা একটি কাঁচি আশিসের পেটে ঢুকিয়ে দেয়। সেইসময় আশিসও কবিতাকে ধাক্কা মারায় সেও জখম হয়। এরপরই রক্তাক্ত অবস্থায় বিছানায় লুটিয়ে পড়ে আশিস। এদিকে প্রতিবেশীরা অনেক্ষণ ধরেই কবিতার বাড়িতে চিৎকারের আওয়াজ পেয়ে ছুটে এসে দেখেন ঘর রক্তে ভেসে যাচ্ছে আর বিছানায় পড়ে রয়েছে এক অজ্ঞাত পরিচয় মানুষ। পাশে আহত হয়ে বসে রয়েছে কবিতা। বিষয়টি দেখা মাত্রই স্থানীয়দের তরফে খবর দেওয়া হয় পুলিশে।

আরও পড়ুন -  ফের পৌরসভার কাজে বাধা রেলের, কেটে ফেলে দেওয়া হল বিদ্যুৎ স্তম্ভ, রেলকে হুঁশিয়ারি পুলিশের

পুলিশ এসে আশিসকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই তিনি মারা যান। এদিকে জখম অবস্থায় ইতিমধ্যেই হাওড়া জেলা হাসপাতালে ভরতি কবিতা। আশিসের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ কবিতাকে গ্রেফতার করেছে। পরিকল্পনা করেই আশিসকে খুন করা হয়েছে কিনা তা ইতিমধ্যেই খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

1